তথ্যপ্রযুক্তির অপব্যবহার কমাতে সোশ্যাল মিডিয়া এক্সপো

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ব্যবহারকারীদের আরও বেশি সচেতন করতে ‘অ্যাওয়ার বাংলাদেশ’ স্লোগানে আগামী বছরের ৩ ও ৪ ফেব্রুয়ারি ঢাকার সামরিক জাদুঘর প্রাঙ্গণে ‘সোশ্যাল মিডিয়া এক্সপো-২০১৭’ অনুষ্ঠিত হবে। সরকারের তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগ এবং ভার্ব ইভেন্টস এ এক্সপোর আয়োজক।

আজ রোববার কারওয়ান বাজারে সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির যাতে অপব্যবহার না হয়, সে জন্য এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। যাঁরা সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার করছেন, তাঁদের যেমন সচেতন করা হবে, তেমনি অব্যবহারকারীদেরও সচেতন করা হবে এ মেলার মাধ্যমে; যাতে কোনো গুজব যেন সহজেই কেউ বিশ্বাস না করেন। তিনি আরও বলেন, কয়েক বছর ধরে সামাজিক মাধ্যমে গুজব ছড়িয়ে সমাজ, দেশের সম্পদের ক্ষতি করা হচ্ছে। কিন্তু এসবের বিপরীতে অনেকেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভালো কাজ করছে শিক্ষাবিস্তারে, সচেতনতা গড়ে তুলতে। এ ধরনের ভালো কাজগুলোকে সারা দেশে ছড়িয়ে দেওয়া হবে এ মেলার মাধ্যমে।

তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. হারুনুর রশীদ বলেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের যে শক্তি, তা ব্যবহার করে আরও বেশি জনসম্পৃক্ততামূলক কাজ করতে চাই।



সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, সচেতনতা তৈরির পাশাপাশি ইন্টারনেটের বহুবিধ ব্যবহার সম্পর্কে বিভিন্ন কার্যক্রম থাকবে। যার মধ্যে সাইবার আইন ও অপরাধ, ই-লার্নিং, ই-হেলথ, ই-সিকিউরিটিসহ আরও বিভিন্ন বিষয়ে জানানো ও সচেতনতামূলক কার্যক্রম থাকবে।

দুই দিনের সোশ্যাল মিডিয়া এক্সপোতে ছয়টি সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। সারা দেশে এই আয়োজন ছড়িয়ে দিতে প্রতি জেলা থেকে দুজন করে মোট ১২৮ জন প্রতিনিধি উপস্থিত থাকবেন। গুগল, ফেসবুক ও টুইটারের কয়েকজন প্রতিনিধিরও এতে অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে। এ ছাড়া বাংলাদেশের তৃণমূল মানুষের কাছে ইন্টারনেট, কম্পিউটার এসব বিষয়ে জ্ঞান ছড়িয়ে দিতে এ মেলায় ওয়েবসাইটভিত্তিক ‘ইন্টারনেট লিটারেসি সেন্টার’-এর উদ্বোধন করা হবে।

আয়োজক প্রতিষ্ঠান ভার্ব ইভেন্টসের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা অমিতাভ বড়ুয়া বলেন, যাঁরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সচেতনতামূলক তথ্য জানিয়ে পরিচিতি পেয়েছেন, তাঁদের মাধ্যমে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের আরও বেশি সচেতন করার জন্য এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

অভিনেত্রী নওশীন, ভার্ব ইভেন্টসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সামিয়া আহমেদ, ইউটিউবার সালমান মুক্তাদির ও টেন মিনিট স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা আয়মান সাদিক সংবাদ সম্মেলনে বক্তৃতা করেন।

Facebook Comments